التصنيف: الأعلام .

عمرو ابن أم مكتوم بن قيس القرشي

English ‘Amr ibn Umm Maktūm ibn Qays al-Qurashi
اردو عمرو بن ام مکتوم بن قیس قرشی
বাংলা ভাষা আমর ইবন উম্মু মাকতূম ইবন কায়েস আল-কুরাইশী
हिन्दी अम्र बिन उम्म-ए-मकतूम बिन क़ैस क़ुरशी

ابن أُمّ مَكْتُوم

English Ibn Umm Maktūm
اردو ابن ام مکتوم
বাংলা ভাষা ইবন উম্মু মাকতূম
हिन्दी इब्न उम्म-ए-मकतूम

ابن أم مكتوم اسمه عمرو عند الأكثر، وقيل عبد الله، وهو ابن قيس بن زائدة القرشي العامري، وأم كلثوم أمه هي عاتكة المخزومية، صحابي جليل، كان ضرير البصر، أسلم بمكة وهاجر إلى المدينة بعد وقعة بدر، وكان يؤذن لرسول الله -صلى الله عليه وسلم - في المدينة مع بلال، وكان النبي -صلى الله عليه وسلم- يستخلفه على المدينة في عامة غزواته، وله رواية، وحضر حرب القادسية ومعه راية سوداء وعليه درع سابغة، فقاتل وهو أعمى، ورجع بعدها إلى المدينة، فتوفي بها قبيل وفاة عمر بن الخطاب، وقيل: توفي في القادسية سنة 15.

English He is Ibn Umm Maktūm. According to the majority, his name is ‘Amr, and it was said: ‘Abdullah. He is Ibn Qays ibn Zā’idah al-Qurashi al-‘Āmiri. His mother, Umm Kulthūm, is ‘Ātikah al-Makhzūmiyyah. He was an honorable Companion and he was blind. He embraced Islam in Makkah and emigrated to Madīnah after the Battle of Badr. He used to make Adhan for the Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him) in Madīnah along with Bilāl. The Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him) used to make him his successor in Madīnah in most of his battles. He narrated from the Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him). He witnessed the Battle of Qādisiyyah while holding a black banner and wearing a full armor and he fought despite being blind. After that, he returned to Madīnah where he died just before the death of ‘Umar ibn al-Khattāb, and it was said that he died in Al-Qādisiyyah in 15 AH.
اردو ابن ام مکتوم کا نام اکثر لوگوں کے نزدیک عمرو ہے، کچھ لوگوں نے عبداللہ بھی کہا ہے، ان کے والد کا نام قیس بن زائدہ قرشی عامری ہے، ان کی مان ام مکتوم کا نام عاتکہ مخزومیہ ہے، ایک بڑے صحابی تھے، نابینا تھے، مکہ میں مسلمان ہوئے اور جنگ بدر کے بعد ہجرت کرکے مدینہ پہنچ گئے، مدینہ میں بلال -رضی اللہ عنہ- کے ساتھ اذان دیتے تھے، اللہ کے رسول -صلی اللہ علیہ و سلم- جب جنگوں میں جاتے، تو عام طور پر ان کو ہی اپنا نائب بناکر مدینے میں چھوڑ جاتے تھے، انھوں نے حدیث بھی روایت کی ہے، جنگ قادسیہ میں شریک ہوئے تو ان کے ساتھ ایک کالا جھنڈا اور ایک پورے بدن کو چھپانے والی ذرہ تھی، نابینا ہونے کے باوجود جنگ کی، اس کے بعد مدینہ لوٹ گئے، وہيں پر عمر بن خطاب -رضی اللہ عنہ- کی وفات سے کچھ دن پہلے وفات پائی، کچھ لوگوں کا کہنا ہے کہ قادسیہ میں سنہ 15ھ میں وفات پائی۔
বাংলা ভাষা ইবন উম্মু মাকতূম, অধিকাংশের মতে তার নাম ছিল আমর, কেউ কেউ বলেছেন: আব্দুল্লাহ। তিনি কায়েস ইবন যায়িদাহ আল-কুরাইশী আল-আমিরীর পুত্র ছিলেন। তার মাতা উম্মু কালসূম এর নাম হচ্ছে আতিকাহ আল-মাখযূমিয়্যাহ। তিনি (ইবনু উম্মু মাকতূম) একজন সম্মানিত সাহাবী ছিলেন। তিনি দৃষ্টিতে অন্ধ ছিলেন। তিনি মক্কাতেই ইসলাম গ্রহণ করেন, তবে বদরের যুদ্ধের পরে তিনি মদীনাতে হিজরত করেন। তিনি বিলালের সাথে মদীনাতে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মুয়জ্জিন ছিলেন। যুদ্ধের সময়ে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাকে মদীনার দায়িত্ব প্রদান করতেন। তার থেকে বর্ণিত হাদীস রয়েছে। তিনি কাদেসিয়ার যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন, তার সাথে একটি কালো ঝান্ডা ছিল, এবং তার গায়ে একটি প্রশস্ত বর্ম ছিল। তিনি অন্ধ হয়েও লড়াই করেন। এরপরে তিনি মদীনাতে ফিরে আসেন। উমার ইবনুল খত্তাবের মারা যাওয়ার কিছুদিন আগে তিনি মারা যান। কেউ কেউ বলেছেন: তিনি কাদেসিয়াতে ১৫ হিজরীতে মৃত্যুবরণ করেন।
हिन्दी इब्न-ए-उम्म-ए-मकतूम। अधिकतर लोगों के निकट नाम अम्र, जबकि कुछ लोगों के निकट अब्दुल्लाह बिन क़ैस बिन ज़ाइदा कुरशी आमिरी है। उनकी माँ का नाम उम्म-ए-कुलसूम आतिका अल-मख़ज़ूमिया है। एक बड़े सहाबी हैं। दृष्टि बाधित थे। मक्का में मुसलमान हुए तथा बद्र युद्ध के बाद मदीना आए। मदीना में बिलाल -रज़ियल्लाहु अन्हु- के साथ अल्लाह के रसूल -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- के लिए अज़ान देते थे। अल्लाह के रसूल -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- जब किसी युद्ध पर जाते, तो आम तौर पर मदीने में उनको अपने स्थान पर छोड़ जाते थे। उनसे हदीसें भी वर्णित हैं। क़ादसिया युद्ध में शामिल हुए। हाथ में एक काला झंडा था और एक पूरे शरीर को ढाँपने वाला कवच पहने हुए थे। इस युद्ध में दृष्टि बाधित होने के बावजूद युद्ध किया। युद्ध के बाद मदीना लौटे और उमर -रज़ियल्लाहु अन्हु- की मृत्यु से कुछ पहले मृत्यु को प्राप्त हुए। कुछ लोगों का कहना है कि 15 हिजरी में क़ादसिया युद्ध में मारे गए।

الاستيعاب في معرفة الأصحاب (3/1198)، أسد الغابة (4/251)، الأعلام للزركلي (5/83).