Category: Persons .

ورقة بن نوفل بن أسد

English Waraqah ibn Nawfal ibn Asad
اردو ورقہ بن نوفل بن اسد
বাংলা ভাষা ওয়ারাকাহ ইবন নাওফেল ইবন আসাদ
हिन्दी वरक़ा बिन नौफ़ल बिन असद
తెలుగు వరఖా బిన్ నౌఫల్ బిన్ అసద్

ورَقَة بن نوفل

English Waraqah ibn Nawfal
اردو ورقہ بن نوفل
বাংলা ভাষা ওয়ারাকাহ ইবন নাওফেল
हिन्दी वरक़ा बिन नौफ़ल
తెలుగు వరఖా బిన్ నౌఫల్

هو ورَقَة بن نوفل بن أسد بن عبد العزى بن قصي القرشي الأسدي، ابن عم خديجة زوج النبي - صلى الله عليه وسلم -، مختلف في صحبته، فمن العلماء من ذكره في الصحابة كالطبري والبغوي وابن قانع وابن السكن وغيرهم، ومن العلماء من قال: إنه ليس صحابيا، ولكنه آمن بالنبي - صلى الله عليه وسلم - ومات في فترة الوحي، قال ابن حجر: "فهذا ظاهره أنه أقر بنبوته، ولكنه مات قبل أن يدعو رسول الله - صلى الله عليه وسلم - الناس إلى الإسلام، فيكون مثل بحيرا، وفي إثبات الصحبة له نظر". ومنهم من توقف فيه وذكر الخلاف، قال الكرماني: "فإن قلت ما قولك في ورقة؛ أيحكم بإيمانه؟ قلت لا شك أنه كان مؤمنا بعيسى عليه السلام، وأما الإيمان بنبينا عليه السلام فلم يُعْلَم أن دين عيسى قد نسخ عند وفاته أم لا، ولئن ثبت أنه كان منسوخا في ذلك الوقت، فالأصح أن الإيمان التصديق وهو قد صدقه من غير أن يذكر ما ينافيه". والراجح - والله أعلم - أنه مؤمن موحد، ولكن لا يعد في الصحابة؛ لأنه مات في فترة الوحي بعد النبوة وقبل الرسالة.

English He is Waraqah ibn Nawfal ibn Asad ibn ‘Abdul-‘Uzza ibn Qusayy al-Qurashi al-Asadi, the paternal cousin of Khadījah, the Prophet's wife. Scholars held different opinions regarding whether or not he is counted among the Companions. Some scholars, like At-Tabari, Al-Baghawi, Ibn Qāni‘, Ibn as-Sakan, and others, mentioned him among the Companions. Others, however, said that he was not a Companion; rather, he believed in the Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him) and died during the time of the revelation. Ibn Hajar said: "This apparently means that he acknowledged his prophethood, but died before the Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him) started calling people to Islam. Thus, he is like Bahīra. Counting him among the Companions is disputable." On the other hand, some scholars said nothing about it, only mentioned the different opinions in this regard. Al-Kirmāni said: "When being asked about Waraqah and whether or not he is counted a believer, I would say that he was a believer in ‘Īsa (Jesus) (peace be upon him) and there is no doubt about that. As for belief in our Prophet (peace be upon him), it is unknown whether or not the religion of Jesus was abrogated at the time of his death. If it was abrogated at that time, then faith, according to the sound opinion, at that time refers to affirmation and he (Waraqah) affirmed his prophethood without mentioning anything that contradict it." The preponderant opinion in this regard, and Allah knows best, is that he was a believer and a monotheist; however, he is not counted among the Companions because he died during the revelation period, i.e., after the beginning of the Prophet's mission but before the Prophet started conveying the divine message.
اردو ورقہ بن نوفل بن اسد بن عبدالعزی بن قصی قرشی اسدی اللہ کے نبی -صلی اللہ علیہ و سلم- کی بیوی خدیجہ -رضی اللہ عنہا- کے چچازاد بھائی تھے، ان کو اللہ کے رسول -صلی اللہ علیہ و سلم- کی صحبت نصیب ہوئی یا نہيں، اس کے بارے میں اختلاف ہے، طبری، بغوی، ابن قانع اور ابن السکن جیسے کچھ علما نے ان کا ذکر صحابہ میں کیا ہے، جب کہ کچھ علما کا کہنا ہے کہ وہ صحابی نہيں ہیں، بلکہ وہ اللہ کے رسول -صلی اللہ علیہ و سلم- پر ایمان لائے اور انہی دنوں میں ان کا انتقال ہو گیا، جن دنوں کچھ وقت کے لیے وحی کا سلسلہ بند تھا، ابن حجر کہتے ہیں : "اس حدیث کا ظاہر یہ بتاتا ہے کہ انھوں نے نبوت کا اقرار تو کیا، لیکن اس سے پہلے کہ اللہ کے رسول -صلی اللہ علیہ و سلم- لوگوں کو اسلام کی جانب بلاتے، انتقال کر گئے، اس طرح وہ بحیرا راہب کی طرح ہوئے، ان کے حق میں اللہ کے رسول -صلی اللہ علیہ و سلم- کی صحبت ثابت کرنا محل نظر ہے۔" جب کہ کچھ علما نے اختلاف بیان کرنے کے بعد توقف کیا ہے، کرمانی کہتے ہیں : "اگر آپ کہیں کہ روقہ کے بارے میں آپ کی کیا رائے ہے؟ کیا ان کو مومن مانا جائے گا؟ تو میں کہوں گا : اس بات میں کسی شک و شبہ کی گنجائش نہيں ہے کہ وہ عیسی علیہ السلام پر ایمان رکھتے تھے، جہاں ہمارے نبی پر ایمان لانے کی بات ہے، تو یاد رکھنا چاہیے کہ یہ بات واضح نہيں ہو پاتی ہے کہ ان کے انتقال کے وقت عیسی -علیہ السلام- کا دین منسوخ ہو چکا تھا یا نہیں؟ اگر یہ ثابت ہو جائے کہ اس وقت عیسی -علیہ السلام- دین منسوخ ہو چکا تھا تو زیادہ صحیح بات یہ ہے کہ ایمان تصدیق کرنے کا نام ہے اور انھوں آپ کی تصدیق کی تھی، ساتھ ہی کسی ایسی بات کا ذکر بھی نہیں ملتا جو اس تصدیق کے منافی ہو۔" راجح بات یہ ہے کہ وہ موحد مومن تھے۔ واللہ اعلم بالصواب، لیکن ان کا شمار صحابہ میں نہیں ہوگا، کیوںکہ ان کا انتقال نبوت کے بعد اور رسالت سے پہلے کی اس مدت میں ہوگیا تھا جب وحی کا سلسلہ بند تھا۔
বাংলা ভাষা ওয়ারাকাহ ইবন নাওফেল ইবন আসাদ ইবন আব্দুল উযযা ইবন কুসাই আল-কুরাইশী আল-আসাদী। তিনি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের স্ত্রী খাদিজাহর চাচাতো ভাই ছিলেন। তার সাহাবী হওয়ার বিষয়টি বিতর্কিত। আলিমদের একটি দল তাকে সাহাবীদের ভেতর উল্লেখ করেছেন, যাদের মধ্যে রয়েছেন: তাবারী, বাগাভী, ইবনু কানি‘ এবং ইবনুস সাকানসহ আরো অনেকে। আবার আরেক দল রয়েছেন, যারা তাকে সাহাবী মনে করেননি, তবে তিনি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের উপরে ঈমান এনেছিলেন আর ‘ফাতরাতুল অহী’ বা অহী বন্ধ থাকা অবস্থায় মারা যান। ইবন হাজার বলেছেন: ‘এটাই স্পষ্ট যে, তিনি তার নবুওয়তের স্বীকৃতি দিয়েছিলেন। তবে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মানুষকে ইসলামের দাওয়াত দেওয়ার আগেই তিনি মারা গিয়েছিলেন। আর এ কারণে তিনি বুহাইরার মতই ছিলেন। তার সাহাবী সাব্যস্ত হওয়ার ব্যাপারটি প্রশ্নবিদ্ধ।” আবার আলিমদের অনেকে রয়েছেন, যারা মতভেদ উল্লেখ করে তার ব্যাপারে চুপ থেকেছেন। কিরমানী বলেছেন: “যদি আমাকে বলা হয় যে, ওয়ারাকাহর ব্যাপারে আপনি কী বলবেন? তার ঈমান ছিল, এ কথা কি বলা যাবে? তাহলে আমি বলব: তিনি ঈসা আলাইহিস সালামের উপরে ঈমান এনেছিলেন, এ ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই। আর আমাদের নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের উপরে ঈমানের ব্যাপারটি হচ্ছে, এ ব্যাপারে জানা যায়নি যে, তার মৃত্যুর সময়ে ঈসা আলাইহিস সালামের দীন মানসূখ (রহিত) হয়েছিল কিনা। যদি সাব্যস্ত হয় যে, ঐ সময়ে তা রহিত বা মানসূখ হয়েছিল, তবে বিশুদ্ধ কথা হচ্ছে, ঈমান হচ্ছে সত্যায়ন করা, আর তিনি রাসূলকে সত্যায়ন করেছেন এবং এর বিপরীত কিছুই উল্লেখ করেননি।” প্রাধান্যপ্রাপ্ত মত হচ্ছে -আল্লাহই সবচেয়ে ভাল জানেন- তিনি একজন মু’মিন ও তাওহীদপন্থী ছিলেন। কিন্তু তিনি নবুওয়তের পরে ‘ফাতরাতুল অহী’ বা অহী বন্ধ থাকা অবস্থায় তিনি মারা যাওয়ায়, তাকে সাহাবীদের মধ্যে গণ্য করা হবে না।
हिन्दी वरक़ा बिन नौफ़ल बिन असद बिन अब्द अल-उज़्ज़ा बिन क़ुसय क़ुरशी असदी, अल्लाह के नबी -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- की पत्नी ख़दीजा के चचेरे भाई। सहाबी थे या नहीं, इस बारे में मतभेद है। तबरी, बग़वी, इब्न क़ाने तथा इब्न सकन जैसे कुछ उलेमा ने उनको सहाबी माना है, तो कुछ उलेमा ने सहाबी नहीं माना है और कहा है कि वह अल्लाह के रसूल -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- पर ईमान तो लाए, लेकिन वह्य का सिलसिला बंद रहने की अवधि ही में मृत्यु को प्राप्त हो गए। इब्न-ए-हजर कहते हैं : "इससे पता चलता है कि उन्होंने आपके नबी होने का इक़रार किया, लेकिन इससे पहले कि अल्लाह के रसूल -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- लोगों को इस्लाम की ओर बुलाते, मृत्यु को प्राप्त हो गए। इस तरह वह बुहैरा के समान हुए। उनको सहाबी मानने में संदेह है।" जबकि कुछ उलेमा ने उनके बारे में ख़ामोशी बरती है और उलेमा के अलग-अलग मतों को बयान किया है। किरमानी कहते हैं : "यदि आप पूछें कि आप वरक़ा के बारे में क्या कहेंगे? क्या उनके मोमिन होने का निर्णय दिया जाएगा? तो मैं कहूँगा : इसमें कोई संदेह नहीं है कि उनका ईसा -अलैहिस्सलाम- पर ईमान था। रही बात हमारे नबी पर ईमान लाने की, तो यह मालूम नहीं हो सका है कि ईसा -अलैहिस्सलाम- का धर्म उनकी मृत्यु के समय निरस्त हुआ था या नहीं? अगर यह साबित हो जाए कि उनका धर्म उस समय निरस्त हो चुका था, तो उचित बात यह है कि ईमान पुष्टि करने का नाम है और उन्होंने आपकी पुष्टि कर दी थी और ईमान के विपरीत कोई बात नहीं कही थी।" अतः अधिक उचित बात यही लगती है कि वह एकेश्वरवादी मुसलमान थे, लेकिन सहाबा में शुमार नहीं होंगे। क्योंकि उनकी मिर्तुय उस अवधि में हुई थी जो अल्लाह के रसूल -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- के नबी बनने और आप के रसूल बनने के बीच का है।
తెలుగు వరఖా బిన్ నౌఫల్ బిన్ అసద్ బిన్ అబ్దుల్-ఉజ్జా బిన్ ఖుసై ఖుర్షీ అసదీ, దైవప్రవక్త సల్లల్లాహు అలైహి వసల్లం భార్య ఖదీజా బాబాయి కుమారుడు. ఇతను సహాబీ అవుతాడా లేదా అనే విషయంలో భిన్నాభిప్రాయాలు ఉన్నాయి. ఇమాంతబ్రీ,బఘవి,ఇబ్ను ఖానీఅ్ మరియు ఇబ్నుసకన్ వంటి కొంతమంది ఉలమాలు అతన్ని సహాబీగా పరిగణించారు. మరికొందరు ఉలమాలు అతనిని సహాబీగా అంగీకరించలేదు కానీ ఆయన దైవప్రవక్త సల్లల్లాహు అలైహి వసల్లంను విశ్వసించారని చెప్పారు కానీ దైవవాణి ఆగిన వ్యవధిలోనే మరణించారు. ఇబ్ను-హజర్ ఇలా అన్నారు:" దైవప్రవక్తను అతను అంగీకరించాడన్నది స్పష్టమైన విషయం అయితే దైవప్రవక్త సల్లల్లాహు అలైహి వసల్లం ప్రజలను ఇస్లాం వైపుకు ఆహ్వానించడానికి ముందే మరణించారు. అందువలన అతను బుహైరాలాగా అయ్యాడు. అతనిని ఒక సహాబీగా అంగీకరించడంలో సందేహం ఉంది." కొంతమంది ఉలమాలు అతని గురించి మౌనం వహించారు మరియు ఉలమాల గురించి భిన్నమైన అభిప్రాయాలను వ్యక్తం చేశారు. కిర్మాణి ఇలా అన్నారు: "మీరు చెప్పదలిస్తే వరఖా గురించి ఏమి చెబుతారు? అతను విశ్వాసి అని నిర్దారించవచ్చా? నేను చెబుతాను: అతను ఈసా అలైహిస్సలాంను విశ్వసించాడనడంలో ఎలాంటి సందేహం లేదు. ఇక మన ప్రవక్తను విశ్వసించాడా అనే విషయంగా 'అతని మరణ సమయానికి ఈసా అలైహిస్సలాం ధర్మం రద్దు చేయబడిందా లేదా అనేది తెలియదు. ఒకవేళ ఆ సమయానికి అది రద్దు చేయబడిందని రుజువైతే. వాస్తవమేమిటంటే అతని ఈమాను విశ్వసనీయమవుతుంది ఎందుకంటే అతను ఎలాంటి తిరస్కరణ లేకుండా సత్యమని ప్రవక్తను ధృవీకరించారు. ఈ విషయంలో ఆమోదయోగ్య విషయం అతను ఏకేశ్వరోపాసన కలిగిన ముస్లిం అయినప్పటికీ, సహాబాలో చేర్చబడలేదు. ఎందుకంటే అతను దైవప్రవక్త సల్లల్లాహు అలైహి వసల్లం దైవదౌత్యం పొందిన తరువాత ప్రవక్తగా మారడానికి ముందు దైవవాణి ఆగిపోయిన మధ్య కాలంలో మరణించారు.

معجم الصحابة لابن قانع (3/181) أسد الغابة (4/671) الوافي بالوفيات (27/257)الأعلام للزركلي (8/114)