Category: Persons .

عثمان بن عفان بن أبي العاص

English ‘Uthmān ibn ‘Affān ibn Abi al-‘Ās
اردو عثمان بن عفان بن ابوالعاص
বাংলা ভাষা উসমান ইবন আফফান ইবন আবিল ‘আস
हिन्दी उसमान बिन अफ़्फ़ान बिन अबू अल-आस
తెలుగు ఉస్మాన్ బిన్ అఫ్ఫాన్ బిన్ అబుల్ ఆస్

عثمان بن عفان -رضي الله عنه-

English ‘Uthmān ibn ‘Affān (may Allah be pleased with him)
اردو عثمان بن عفان -رضی اللہ عنہ-
বাংলা ভাষা উসমান ইবনু আফফান রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু
हिन्दी उसमान बिन अफ़्फ़ान -रज़ियल्लाहु अन्हु-
తెలుగు ఉస్మాన్ బిన్ అఫ్ఫాన్ రజియల్లాహు అన్హు

هو الخليفة الراشد، أمير المؤمنين، عثمان بن عفان بن أبي العاص القرشي الأموي، كان من السابقين إلى الإسلام، زوَّجه النبيُّ - صلى الله عليه وسلم - ابنته رقيةَ، فلما ماتتْ زوَّجه أختها أمَّ كلثوم، وكان يلقَّب بذي النورين، وهو أحد العشرة المبشَّرين بالجنة، وأحد السِّتة الذين تُوُفي النبي - صلى الله عليه وسلم - وهو عنهم راضٍ، قال فيه النبي - صلى الله عليه وسلم -: {ألا أستحي من رجلٍ تستحي منه الملائكة}، وقال فيه أيضًا: {بشِّرْه بالجنة على بلوَى تُصيبه}، وقد كانت له مواقفُ عظيمةٌ، تدلُّ على فضله ونُصرته لهذا الدين، فمن ذلك أنه هاجَرَ الهجرتين: الأولى إلى الحبشة، والثانية إلى المدينة، وجهَّز جيش العُسرة، وحفَرَ بئر رُومَة وتصدَّق بها على المسلمين، كما قام بتوسعة المسجد النبوي، وفي عهده جمع القرآن الكريم، وتوسَّعتْ فتوحات المسلمين، ووصلتْ إلى مشارق الأرض ومغاربها.

English He is the Rightly-Guided Caliph, the Commander of the Believers, ‘Uthmān ibn ‘Affān ibn Abi al-‘Ās al-Qurashi al-Umawi. He was one of the early Muslims. The Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him) married his daughter Ruqayyah to him. After her death, He married her sister, Umm Kulthūm, to him; thus, he was nicknamed 'Dhun-Nūrayn' (the one with two lights). He was one of the ten who were given the glad tidings of Paradise, and one of the six whom the Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him) died while he was pleased with. The Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him) said about him: "Should I not feel shy of a man whom the angels feel shy of?" He also said about him: "Give him the glad tidings of Paradise for a trial that would afflict him." He had many great stances, which shows his merit and support for Islam, some of which are: emigrating twice: first to Abyssinia then to Madīnah; preparing the army of Al-‘Usrah; digging the well of Rūmah and dedicating it as charity to the Muslims; and expanding the Prophetic Mosque. During his caliphate, he collected the Noble Qur’an, and the Muslims' conquests extended reaching the farthest ends of the globe.
اردو خلیفۂ راشد، امیر المؤمنین عثمان بن عفان بن ابوالعاص قرشی اموی بالکل ابتدائی دور میں اسلام قبول کرنے والے لوگوں میں شامل تھے، ان سے اللہ کے رسول -صلی اللہ علیہ و سلم- نے اپی بیٹی رقیہ کا نکاح کرایا تھا، جب رقیہ کا انتقال ہو گیا تو ان سے اپنی دوسری بیٹی ام کلثوم کا نکاح کر دیا، ان کا لقب ذوالنورین تھا،ان دس لوگوں میں شامل تھے جن کو جنت کی خوش خبری دی گئی تھی، ان چھ لوگوں میں بھی شامل تھے جن سے اللہ کے رسول -صلی اللہ علیہ و سلم- وفات کے وقت راضی تھے،ان کے بارے میں اللہ کے نبی -صلی اللہ علیہ و سلم- نے فرمایا ہے : "کیا میں ایک ایسے شخص نہ حیا کروں جس سے فرشتے حیا کرتے ہیں؟" اسی طرح فرمایا تھا : "اسے ایک بلوی میں ہونے والی شہادت کے بعد جنت کی خوش خبری دے دو۔" ان کے کئی بڑے بڑے کارنامے ہيں، جو ان کی فضیلت اور اسلام کی نصرت پر دلالت کرتے ہيں، مثلا انھوں نے دونوں ہجرت کی، پہلی حبشہ کی طرف اور دوسری مدینے کی طرف، مالی تنگی کے وقت تبوک کی جانب روانہ ہونے والے لشکر کو ساز و سامان فراہم کیا، بئر رومہ کھدوایا اور مسلمانوں کے لیے صدقہ کر دیا، مسجد نبوی کی توسیع کی، ان کے عہد میں ہی قرآن کو جمع کیا گیا، بڑے پیمانے پر فتوحات حاصل ہوئیں اور دور دراز علاقوں کے ممالک اسلام کے زیر نگیں آ گئے۔
বাংলা ভাষা তিনি হচ্ছেন আল-খলীফাতুর রাশিদ, আমীরুল মু’মিনীন উসমান ইবন আফফান ইবন আবিল ‘আস আল-কুরাইশী আল-উমাভী। তিনি প্রথম ইসলাম গ্রহণকারীদের মধ্যে একজন। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম স্বীয় কন্যা রুকাইয়াকে তার সাথে বিবাহ দেন। যখন রুকাইয়া মৃত্যুবরণ করেন, তখন নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম রুকইয়ার বোন উম্মু কুলসূমকে বিবাহ দেন। আর উসমানকে ‘যুন নুরাইন’ বা ‘দুই নূরের অধিকারী’ বলা হত। তিনি জান্নাতের সুসংবাদপ্রাপ্ত দশজনের একজন ছিলেন। এবং তিনি এমন ছয়জনের একজন ছিলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মারা যাওয়ার সময়ে যাদের উপরে সন্তুষ্ট ছিলেন। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার ব্যাপারে বলেছেন: “আমি কি এমন ব্যক্তি থেকে লজ্জাবোধ করব না, যার থেকে ফেরেশতারাও লজ্জাবোধ করেন?” তিনি উসমানের ব্যাপারে আরো বলেছেন: “তার উপরে আগত বিপদের ওপর তাকে জান্নাতের সুসংবাদ দাও।” তার অসংখ্য সম্মানজনক মর্যাদা ও অবস্থান রয়েছে। যা তার মর্যাদা ও দীনের ক্ষেত্রে তার সহযোগিতার প্রতি ইঙ্গিত বহন করে। যার মধ্যে রয়েছে: তিনি দুইটি হিজরত করেন, প্রথমটি হাবশাতে ও পরেরটি মদীনাতে। তিনি তাবূক যুদ্ধের সৈন্যদের খরচ বহন করেন, রূমা কূপ খনন করে তা মুসলিমদের জন্য সদকা করে দেন, অনুরুপভাবে মসজিদে নববীর সম্প্রসারণ করেন, তার সময়েই কুরআনকে গ্রন্থবদ্ধ করা হয় এবং মুসলিমদের অঞ্চল-বিজয় আরো প্রসারিত হয়, এমনকি তা পৃথিবীর পূর্ব-পশ্চিম কোণে পৌঁছে যায়।
हिन्दी ख़लीफ़ा-ए-राशिद, अमीर अल मोमिनीन उसमान बिन अफ़्फ़ान बिन अबुल आस क़ुरशी उमवी। आरंभिक काल में इस्लाम ग्रहण करने वाले लोगों में से एक थे। अल्लाह के रसूल -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- ने अपनी बेटी रुक़य्या का विवाह उनसे कराया था। फिर जब उनकी मृत्यु हो गई, तो उनकी बहन उम्म-ए-कुलसूस से उनका विवाह कर दिया। यही वजह है कि उनको ज़ू अन-नूरैन की उपाधि मिली हुई थी। उन दस लोगों में से एक थे, जिनको जन्नत की ख़ुशख़बरी मिली हुई थी तथा उन छह लोगों में से भी एक थे, जिनसे अल्लाह के नबी के नबी -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- मृत्यु के समय खुश थे। उनके बारे में ही आपने कहा था : {क्या मैं उस व्यक्ति से हया (लज्जा) न करूँ, जिससे फ़रिश्ते हया करते हैं?} उनके बारे में यह भी फ़रमाया था : "उसे उपद्रव के शिकार होकर मरने तथा उसके बाद जन्नत प्राप्त करने की ख़ुशख़बरी दे दो।" उन्होंने कई बहुत बड़े-बड़े कार्य किए हैं, जो उनकी फ़ज़ीलत तथा इस्लाम के लिए उनकी सहायता को दर्शाते हैं। उन्होंने दोनों हिजरतें की। यानी हबशा की हिजरत तथा मदीने की हिजरत। तबूक युद्ध के समय जो आर्थिक तंगी का समय था, सेना को तैयार करने में मदद की। रूमा नामी कुआँ खुदवाया और उसे मुसलमानों के लिए सदक़ा कर दिया। मस्जिद-ए-नबवी का विस्तार किया। उनके ख़िलाफ़त काल ही में सारे मुसलमानों को एक मुसहफ़ पर एकत्र किया गया। उनके युग में मुसलमानों को अत्यधिक विजय पराप्त हुई तथा पूरब और पश्चीम दोनों दिशाओं में इस्लामी राज्य में बहुत विस्तार हुआ ।
తెలుగు ఖలీఫారాషీద్ అమీరుల్ మూమినిన్ ఉస్మాన్ బిన్ అఫ్ఫాన్ బిన్ అబుల్ ఆస్ ఖుర్షి ఉమవి.ప్రప్రథమంగా ఇస్లాం స్వీకరించిన వారిలో ఒకరు. దైవప్రవక్త సల్లల్లాహు అలైహి వసల్లం తన కుమార్తె రుఖయ్యాను అతనితో వివాహం జరిపించారు. ఆమె మరణించిన తరువాత ఆమెసోదరి ఉమ్మేకల్సూమును వివాహం చేసుకున్నారు. అందుకే అతనికి జున్నూరైన్ అనే బిరుదు వచ్చింది. అతను స్వర్గం యొక్క శుభవార్త అందుకున్న పది మంది సహాబాలలో ఒకరు మరియు దైవప్రవక్త సల్లల్లాహు అలైహి వసల్లం తన మరణ సమయంలో ప్రసన్నుడై సంతృప్తి చెందిన ఆరుగురిలో కూడా ఒకరు. అతని గురించి దైవప్రవక్త ఇలా అన్నారు: {దైవదూతలు సైతం బిడియపడే వ్యక్తి గురించి నేను బిడియపడకూడదా?} అతని గురించి ఇది కూడా చెప్పబడింది: "అతను ఉపద్రవాలను ఎదురుకుని మరణించి స్వర్గాన్ని పొందుతారని శుభవార్త అందించబడింది." ఆయన అనేక గొప్పపనులు చేసారు, ఇది అతని దాతృత్వాన్ని మరియు ఇస్లాం కోసం అతని సహాయాన్ని తెలియజేస్తుంది. రెండు సార్లు హిజ్రతు చేశారు. అంటే హబ్షా హిజ్రత్ మరియు మదీనా హిజ్రత్. ఆర్ధిక సంక్షోభం ఏర్పడిన యుద్ధ సమయంలో సైన్యాన్ని సిద్ధం చేయడానికి సహాయపడ్డారు. రుమా అనే బావిని తవ్వి ముస్లింలకు సదఖాగా ఇచ్చారు. మస్జిద్-ఎ-నబవి విస్తరించబడింది. అతని ఖిలాఫత్ కాలంలోనే ఖుర్ఆను సమీకరణ జరిగింది. అతని కాలంలో ముస్లింలు అత్యధిక విజయాలు సాధించారు మరియు ఇస్లామిక్ రాజ్యం తూర్పు మరియు పడమర రెండింటిలోనూ బాగా విస్తరించింది.

الأزهري

تاريخ الإسلام (2/257) الإصابة (4/377) الاستيعاب (3/1037) الأعلام للزركلي (4/210)