Category: Persons .

سعد بن أبي وقاص مالك

English Sa‘d ibn Abi Waqqās Mālik
اردو سعد بن ابو وقاص مالک
বাংলা ভাষা সা‘দ ইবন আবী ওয়াক্কাস মালিক
हिन्दी साद बिन अबू वक़्क़ास मालिक
తెలుగు సఅ్ ద్ బిన్ అబీ వక్ఖాస్ మాలిక్.

سعد بن أبي وقَّاص -رضي الله عنه-

English Sa‘d ibn Abi Waqqās (may Allah be pleased with him)
اردو سعد بن ابو وقاص -رضی اللہ عنہ-
বাংলা ভাষা সা‘দ ইবন আবূ ওয়াক্কাস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু
हिन्दी सअ्द बिन अबू वक़्क़ास -रज़ियल्लाहु अन्हु-
తెలుగు సఅ్ ద్ బిన్ అబీ వక్ఖాస్ రజియల్లాహు అన్హు

سعد بن أبي وقاص مالك بن أهيب -ويقال له ابن وهيب- بن عبد مناف بن زهرة بن كلاب القرشي الزهري أبو إسحاق، صحابي جليل، وأحد العشرة المبشرين بالجنة وآخرهم موتا، كان أحد الفرسان، وهو أول من رمى بسهم في سبيل اللَّه، وهو أحد الستة أهل الشورى، وكان مجاب الدعوة مشهورا بذلك، فتح مدائن كسرى، واعتزل الفتنة، توفي عام 55.

English He is Sa‘d ibn Abi Waqqās Mālik ibn Uhayb - or ibn Wuhayb - ibn ‘Abd Manāf ibn Zuhrah ibn Kilāb al-Qurashi az-Zuhari Abu Is-hāq. He was an honorable Companion; and one of the ten who were given the glad tidings of Paradise and was the last to die among them. He was one of the knights and the first to shoot an arrow in the cause of Allah. He was one of the six whom the Prophet (may Allah's peace and blessings be upon him) used to consult. His supplications were always answered and he was known for that. He conquered Ctesiphon and chose to stay aloof during the time of Fitnah (civil war). He died in 55 AH.
اردو سعد بن ابو وقاص مالک بن وہیب -ان کو ابن وہیب بھی کہا جاتا ہے،بن عبد مناف بن زہرہ بن کلاب قرشی زہری، کنیت ابو اسحاق ہے، ایک بڑے صحابی ہیں، ان دس خوش نصیب لوگوں میں شامل تھے جن کو اللہ کے نبی -صلی اللہ علیہ و سلم- نے جنت کی خوشخبری دی تھی، ان دس حضرات میں سب سے آخر میں وفات پائی۔ بڑے اچھے گھڑ سوار تھے، انھوں نے ہی سب سے پہلے اللہ کی راہ میں تیر پھینکی،ان چھ لوگوں میں بھی شامل رہے، جن کو عمر بن خطاب -رضی اللہ عنہ- کے انتقال کے بعد خلیفہ منتخب کرنے کے لیے مشورے میں شامل کیا گیا تھا، ان کی دعائیں قبول ہوتی تھیں،اس معاملے میں ان کی بڑی شہرت تھی، مدائن کسری کو فتح کیا، فتنے کے وقت الگ رہے سنہ 55 میں وفات پائی۔
বাংলা ভাষা সা‘দ ইবন আবী ওয়াক্কাস মালিক ইবন উহাইব, আরো বলা হয়: ইবন ওয়াহিব, ইবন আবদে মানাফ ইবন যুহরা ইবন কিলাব আল-কুরাইশী আয-যুহরী, আবূ ইসহাক। তিনি একজন সম্মানিত সাহাবী ছিলেন। তিনি দশজন জান্নাতের সুসংবাদপ্রাপ্তদের মধ্যে একজন এবং তাদের মধ্যে সর্বশেষ মৃত্যুবরণকারী ছিলেন। তিনি একজন অশ্বারোহী ছিলেন। তিনিই আল্লাহর পথে সর্বপ্রথম বর্শা নিক্ষেপ করেন। তিনি ছয়জন আহলুশ শুরার অন্তর্ভুক্তও ছিলেন। তার দু‘আ নিশ্চিত কবূল হওয়ার ব্যাপারে তিনি প্রসিদ্ধ ছিলেন। তিনি কিসরার মাদায়েন বিজয় করেন। ফিতনা থেকে দূরে ছিলেন। ৫৫ হিজরীতে তিনি মৃত্যবরণ করেন।
हिन्दी साद बिन अबू वक़्क़ास मालिक बिन उहैब -उनको बिन वुहैब भी कहा जाता है- बिन अब्द-ए-मनाफ़ बिन ज़ोहरा बिन क़िलाब क़ुरशी ज़ोहरी। कुनयत अबू इसहाक़ है। एक बहुत बड़े सहाबी हैं। उन दस भाग्यशाली लोगों में शामिल हैं, जिनको अल्लाह के रसूल -सल्लल्लाहु अलैहि व सल्लम- ने उनका नाम लेकर जन्नत का सुसमाचार सुनाया था। एक बड़े घोड़सवार थे। सबसे पहले अल्लाह के मार्ग में तीर चलाने का सौभाग्य प्राप्त किया था। उन छह लोगों में भी शामिल थे, जिनको उमर -रज़ियल्लाहु अन्हु- ने अपनी मृत्यु के समय ख़लीफ़ा चुनने की ज़िम्मेवारी सोंपी थी। उनकी दुआ ग्रहण हुआ करती थी और उनकी इस विशेषता से सब लोग अवगत थे। किसरा (सासानी वंश) के शासन का अंत इनके हाथों हुआ। फ़ितने के समय सबसे अलग-थलग रहे। सन् 55 हिजरी में मृत्यु को प्राप्त हुए।
తెలుగు సఅ్ ద్ బిన్ అబూ వక్ఖాస్ మాలిక్ బిన్ ఉహైబ్- లేక ఇబ్నువుహైబ్- బిన్ అబ్దుమనాఫ్ బిన్ జహ్రా బిన్ కిలాబ్ అల్ ఖుర్షీ జొహ్రీ అని కూడా పిలుస్తారు. కునియత్ అబూ ఇస్హాక్. ఇతను గొప్ప సహాబీ సహచరుడు. దైవప్రవక్త సల్లల్లాహు అలైహి వసల్లం స్వర్గ శుభవార్త అందించిన పది మంది అదృష్టవంతుల్లోఈయన ఒకరు. చివరిగా మరణించినవారిలో ఒకరు. అతను గొప్పగుర్రపురౌతు. అల్లాహ్ మార్గంలో మొట్టమొదటగా బాణాలు విసిరింది ఆయనే. ఉమర్'రజియల్లాహు అన్హు -మరణించే సమయంలో ఖలీఫాను ఎన్నుకునే బాధ్యతను అప్పగించిన ఆరుగురిలో ఇతను కూడా ఉన్నారు. ఆయన దుఆలు స్వీకరించబడేవి. ఈ విషయంగా ఆయన ప్రజల్లో ప్రఖ్యాతిగాంచారు. కిస్రా పాలన ఈయన చేతుల్లో ముగిసింది. ఫిత్నసమయంలో దూరంగా ఉన్నారు. హిజ్రీ 55వ సంవత్సరంలో మరణించారు.

الكاشف (1/ 430) المعين في طبقات المحدثين (ص: 17) المقتنى في سرد الكنى (1/ 24) تاريخ الإسلام (2/ 490) إكمال تهذيب الكمال (5/ 251) الوافي بالوفيات (15/ 90) الوفيات لابن قنفذ (ص: 31) الأعلام للزركلي(3/87)